প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় বিসিবি

ডিএসএস,ঢাকা: জয়ের মধ্যে আছে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠের টাইগাররা রীতিমত নাকাল করছে প্রতিপক্ষকে। তারপরও বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজ নিয়ে সমর্থকদের উৎসাহ-উদ্দীপনা অনেক কম। তার সাথে যোগ হয়েছে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক। সারা বিশ্বে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া এই করোনা ভাইরাসের কারণে গোটা দেশে বৃহৎ জনসমাগম কমিয়ে ফেলার নির্দেশ এসেছে।

বিসিবিও মাঠে দর্শক সমাগম কমাতে ঢালাও বিক্রি বন্ধ করে জনপ্রতি একটি করে টিকিট বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গতকাল রোববারের ম্যাচে তাই-ই হয়েছে। কেউ একটির বেশি টিকিট কিনতে পারেননি। তাতে দর্শক মাঠে এসেছেন কম। সব মিলে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ সাত থেকে আট হাজার দর্শক হয়েছিল।

এদিকে যতই সময় গড়াচ্ছে ক্রিকেট অনুরাগীদের চোখও বাংলাদেশ আর জিম্বাবুয়ে সিরিজ থেকে ততটাই সরে যাচ্ছে। এখন খেলাপ্রেমী বিশেষ করে ক্রিকেট অনুরাগীদের কৌতুহলী দৃষ্টি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষ্যে যে এ আর রহমানের কনসার্ট এবং বিশ্ব একাদশ আর এশিয়া একাদশের ম্যাচ, সেদিকে।

সবার মনে একটাই চিন্তা, করোনা ভাইরাসের কারণে মুজিব শতবর্ষ উদযাপনের নানা আয়োজনে জনসমাগম কমানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। শতবর্ষ উদযাপনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানও আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।

এরকম অবস্থায় ১৮ মার্চ এ আর রহমানের কনসার্ট ও ২১-২২ মার্চ বিশ্ব একাদশ আর এশিয়া একাদশের ম্যাচ কি হবে? সেখানেও তো প্রচুর জনসমাগম ঘটবে, তাতে করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও থাকবে।

খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাণী ও বক্তব্য শুনে ক্রিকেট অনুরাগীদের বড় অংশ ধরেই নিয়েছেন, ঐ দুই আয়োজন আপাতত নাও হতে পারে। কারণ প্রধানমন্ত্রী পরিষ্কার বলেছেন, জনগণ যেন কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনে জনসমাগম সম্বলিত অনুষ্ঠানের আকার আকৃতি ও অবয়ব কমিয়ে আনার কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

এই অবস্থায় এ আর রহমানের কনসার্ট আর বিশ্ব তারকাদের অংশগ্রহণে যে দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হবার কথা আছে, তার ভবিষ্যত কি? সেটা জানতেই রাজ্যের কৌতুহল সবার।

একদম ভেতরের খবর, পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে বিসিবি। বোর্ডের দায়িত্বশীল এক সূত্র জানিয়েছে, যেহেতু ঐ সব বিশ্ব তারকাদের অন্য সময় একত্রিত করা কঠিন। বর্তমান অবস্থায় অনেক ক্রিকেটার আসতেও চাচ্ছেন না। আবার অনেক রুট এবং এয়ারলাইন্সে ট্রাভেল করাতেও করোনা ভাইরাসের কারণে এসেছে নিষেধাজ্ঞা। ফলে সংশয় তৈরি হয়েছে।

আবার বিসিবিও বিপাকে। অনেক বলে কয়ে বিশ্ব তারকাদের সিডিউল নেয়া হয়েছে। এখন দিনক্ষণ পাল্টালে আবার তাদের একসাথে সবাইকে জড়ো করাও আসলে কঠিন হবে। তাই এ বিষয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে কথা বলতে চাচ্ছেন।

মোদ্দা কথা হলো, এ আর রহমানের কনসার্ট ও বিশ্ব একাদশ-এশিয়া একাদশের ম্যাচ অনুষ্ঠানের আনুষাঙ্গিক বিষয় নজরে আনার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার অপেক্ষায় এখন বিসিবি।

একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, এসব বিষয়ে খোলামেলা কথা বলার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাতপ্রার্থী বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বিসিবি প্রধান আজ (মঙ্গলবার) দুপরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয়ে গেছেন বলেও জানা গেছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দিক নির্দেশনার দিকেও চোখ রাখা হচ্ছে।

শেষ কথা হলো, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তরফ থেকে কনসার্ট আর টি-টোয়েন্টি ম্যাচ সাময়িকভাবে স্থগিত করার নির্দেশ আসলেই ঐ দুই আয়োজন আপাতত বন্ধ রাখা হবে।

ডিএসএস/এমএম